যুক্তরাষ্ট্রে স্ত্রী ও তিন সন্তানকে হত্যার পর আত্মহত্যা

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এক ব্যক্তি তার সাবেক স্ত্রী ও তিন সন্তানকে হত্যার পর আত্মহত্যা করেছেন। এ ঘটনায় ওই দম্পতির আরেক সন্তান গুরুতর অবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছে।সান দিয়েগো পুলিশ বিভাগ জানিয়েছে, ক্যালিফোর্নিয়ার সান দিয়েগো এলাকা প্যারাডাইজ হিলসের ফ্লিন্টরিজ ড্রাইভে শনিবার সকালে এ ঘটনা ঘটেছে।

কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ওই ব্যক্তি তার স্ত্রীসহ তাদের তিন, পাঁচ ও নয় বছর বয়সী তিন ছেলেকে গুলি করে হত্যার পর আত্মহত্যা করেন। এসময় ওই ব্যক্তি তাদের ১১ বছর বয়সী ছেলেও গুলি করে। সে এখন চিকিৎসাধীন আছে বলে জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।পুলিশ জানিয়েছে, ১১ বছর বয়সী ওই শিশুটির অবস্থা গুরুতর। পুলিশ জানায়, তারা শনিবার সকাল ৬টা ৪৯ মিনিটে একটি কল পায়।

কিন্তু ফোনের অপর প্রান্ত থেকে কেউ কথা বলছিল না। তবে তর্কাতর্কির শব্দ শোনা যাচ্ছিল বলে জানায় তারা।কিছুক্ষণ ওই দম্পতির প্রতিবেশি ৯১১ এ কল দেয় বলে জানায় পুলিশ। ওই প্রতিবেশি পুলিশকে জানায়, তিনি ওই দম্পতির বাড়ি থেকে বাকবিতণ্ডা ও নেইল গান বা পেরেক বন্দুক ছোঁড়ার শব্দ শুনেছেন।

তবে পুলিশের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে পৌঁছালে বাড়ির ভেতর থেকে কোনও সাড়াশব্দ পাননি তারা। এসময় তারা জানালা দিয়ে ভেতরে তাকালে একটি শিশুকে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখতে পায়। ফলে তারা দরজা ভেঙে ওই বাড়ির ভেতর প্রবেশ করে।তারা বাড়ির ভেতর পাঁচ ব্যক্তি গুলিবিদ্ধ অবস্থা পড়ে থাকতে দেখেন।

পুলিশ জানায়, ওই দম্পতি ও তাদের তিন বছর বয়সী ছেলে ঘটনাস্থলে মারা গেছেন। আর তাদের পাঁচ ও নয় বছর বয়সী ছেলে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়।সান দিয়েগো পুলিশ বিভাগের লেফটেন্যান্ট ম্যাট ডবস বলেছেন, দেখে মনে হচ্ছে- এটি পারিবারিক সহিংসতার ঘটনা, যেখানে হত্যাকাণ্ডের পর আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে।

বিডিজার্নাল/এসএ

Share.

About Author

Comments are closed.