হাসিনাকে আশ্বস্ত করলেন মোদি

0

নিজস্ব প্রতিবেদক :

নেপালে বিমসটেক শীর্ষ সম্মেলনের পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠক করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় কাঠমান্ডুর হোটেল সোয়ালটি ক্রাউনি প্লাজায় অনুষ্ঠিত এ বৈঠক দুই নেতা একযোগে কাজ করার আশাবাদ ব্যক্ত করেন। এসময় আসামের নাগরিক তালিকা (এনআরসি) এবং রোহিঙ্গা নিয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে আশ্বস্ত করেন মোদি।

এক বিশ্বস্ত সূত্রের বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে কলকাতার শীর্ষস্থানীয় বাংলা দৈনিক আনন্দবাজার পত্রিকা।

পত্রিকাটি বলছে, নির্বাচনের মুখে বাংলাদেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি টালমাটাল হয়ে যাক সেটা চায় না ভারত। তাই মোদি শেখ হাসিনাকে বলেন, আসামের নাগরিক তালিকায় নাম না থাকাদের ‘শরণার্থী এবং অনুপ্রবেশকারীদের’ বাংলাদেশে ফেরত পাঠাবে না ভারত।

এ বিষয়ে হাসিনাকে নিশ্চিন্ত থাকার কথা বলেছেন মোদি। এসময় রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে সহায়তারও আশ্বাস দিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী।

মোদির উদ্ধৃতি দিয়ে আনন্দবাজার বলছে, ‘রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানের জন্য ঢাকাকে দোরে দোরে ঘুরতে হবে না। নয়াদিল্লি এই সমস্যায় সর্বতোভাবে ঢাকার পাশে রয়েছে।’

এ নিয়ে ভারত মায়ানমারের সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছে। এছাড়া কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের জন্য ত্রাণ সামগ্রী পাঠাবে বলেও জানিয়েছে নয়াদিল্লি। ভবিষ্যতে এই সাহায্যের পরিমাণ আরও বাড়ানো হবে বলেও প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন মোদি।

এছাড়া নয়াদিল্লি মিয়ানমারের রাখাইন প্রদেশে রোহিঙ্গাদের জন্য নিরাপদ আবাসন নির্মাণ করবে। দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য এবং বিনিয়োগ নিয়েও শেখ হাসিনাকে ইতিবাচক বার্তা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী মোদি।

এসময় স্বাধীনতার পর থেকে বাংলাদেশের উন্নয়নে ভারতের ভূমিকার কথা উল্লেখ করেছেন হাসিনা। এ জন্য মোদিকে ধন্যবাদ দিয়েছেন তিনি। বৈঠকে দু’দেশের পারস্পরিক উন্নয়নে সহযোগিতার কথাও ব্যক্ত করেন দুই নেতা।

পত্রিকাটি বলছে, ভারতের পক্ষ থেকে এর আগেও বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতাদের এই মর্মে আশ্বাস দেয়া হয়েছিল যে, আসামের নাগরিক পঞ্জি নিয়ে তাদের অযথা আতঙ্কিত হওয়ার কারণ নেই। বৃহস্পতিবারের বৈঠকেও হাসিনাকে এই বার্তাই দিলেন মোদি।

সাব্বির// এসএমএইচ//৩১শে আগস্ট, ২০১৮ ইং ১৬ই ভাদ্র, ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

Share.

About Author

Comments are closed.