পুলিশ ট্রেনিংয়ের লক্ষ্যভ্রষ্ট গুলিতে বৃদ্ধ আহত

0

জামালপুর সংবাদদাতা :

পুলিশ ট্রেনিংয়ের লক্ষ্যভ্রষ্ট গুলিতে আব্দুর রহিম (৬৫) নামে এক বৃদ্ধ আহত হয়ে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) বিকেল ৩টায় লক্ষ্যভ্রষ্ট গুলি শহরের পাথালিয়ার গুয়াবাড়িয়ে গ্রামে বাড়ির টিনের বেড়া ভেদ করে পায়ে লাগলে আহত হন ওই বৃদ্ধ।

আহত আব্দুর রহিম পৌর এলাকার পাথালিয়ার গুয়াবাড়িয়া গ্রামের মৃত সাহা মাহমুদের ছেলে।

বৃহস্পতিবার জামালপুর বিজিবি ক্যাম্পে পুলিশের ফায়ারিং প্রশিক্ষন ছিল।

আব্দুর রহিমের মেয়ে কহিনুর বেগম (৩৫) জানান, যোহরের নামাজ পড়ে বাবা ঘরে শুয়ে ঘুমাচ্ছিলেন। হঠাৎ তিনি চিৎকার করে উঠলে আমরা বাড়ির সবাই তার কাছে যাই। গিয়ে দেখি, বাবার বাম পা রক্তে ভেসে যাচ্ছে। পাশেই পড়ে আছে একটি গুলি। তখনই তাকে জামালপুর জেনারেল হাসপাতালে জরুরি বিভাগে নিয়ে যাই। ডাক্তার বাবাকে দেখে সার্জিক্যাল ওয়ার্ডে ভর্তি করেন। বাবাকে হাসপাতালে ভর্তি করার পর ছুটে আসা ওই গুলিটি আমরা জামালপুর সদর থানায় জমা দিয়েছি। আমাদের ঘরের টিনের বেড়া ভেদ করে গুলিটি এসেছে।

কর্তব্যরত ডাক্তার গাজী মো. রফিকুল হক জানান, বিকেল সোয়া তিনটার সময় গানশ্যূট ইনজুরি নিয়ে আব্দুর রহিম নামে এক বৃদ্ধকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। আমি ক্ষতস্থান দেখে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়েছি। তিনি বর্তমানে সার্জিক্যাল ওয়ার্ডে ভর্তি আছেন।

জামালপুর সদর থানার ওসি মো. সালেমুজ্জামান জানান, রোগীর স্বজনেরা একটি গুলি থানায় জমা দিয়েছেন।

বিকেল সাড়ে ৪টায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. বাছির উদ্দিনসহ পুলিশের একটি দল আহত আব্দুর রহিমকে দেখতে হাসপাতালে যান।

জামালপুর বিজিবির ৩৫ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক কর্লেন এসএম আজাদ বলেন, আজ বিজিবি ক্যাম্পের ফায়ারিং স্পটে পুলিশের প্রশিক্ষণ চলছিল। লক্ষ্যভ্রষ্ট গুলির বিষয়টি পুলিশ প্রশাসনের।

এ প্রসঙ্গে জামালপুরের পুলিশ সুপার মো. দেলোয়ার হোসেন বলেন, আহত রোগীর চিকিৎসার সমস্ত দায়িত্ব নেওয়া হয়েছে। আজ থেকে পুলিশের ফায়ারিং প্রশিক্ষণ বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

এর আগে ২৮ নভেম্বর বিজিবির ফায়ারিং প্রশিক্ষন থেকে গুলি লক্ষভ্রষ্ট হয়ে পাথালিয়া গ্রামের জ্যোতি নামে আট বছর বয়সি কণ্যাশিশু গুলিবিদ্ধ হয়।

বিডিজার্নাল/আরডি

Share.

About Author

Comments are closed.