ফজলে করিমের তোপের মুখে রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক

0

নিজস্ব প্রতিবেদক :

চট্টগ্রামে রেলওয়ে পূর্বাঞ্চল ভবনের নানা অব্যস্থাপনার কারণে রেলপথ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি এবিএম ফজলে করিম চৌধুরীর তোপের মুখে পড়েছেন মহাব্যবস্থাপক (জিএম) নাসির উদ্দিন আহমেদ। গতকাল সোমবার (১৩ জানুয়ারি) নগরের সিআরবিতে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল স্থাপনের জায়গা পরিদর্শনে এসে জিএম নাসির উদ্দিন আহমেদকে নানা প্রশ্নবাণে জর্জরিত করেন এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী। এসময় কোন প্রশ্নের উত্তর না দিয়ে নিরুত্তর ছিলেন নাসির উদ্দিন আহমেদ।

সোমবার দুপুর ১২টার দিকে সিআরবিতে যান ফজলে করিম। এ সময় রেলওয়ের বিভিন্ন অব্যবস্থাপনা দেখে ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি।
উপস্থিত জিএম নাসির উদ্দিন আহমেদকে উদ্দেশ্য করে ফজলে করিম বলেন, চত্বরের আশেপাশে কারা ময়লা ফেলে? তাদের নাম দেন, তাদের এখানে থাকার অধিকার নেই। যারা যত্রতত্র ময়লা ফেলছে, এগুলো নিয়ে তাদের ঘরের মধ্যে ফেলেন। দেখবেন ময়লা আর ফেলবে না।

তিনি বলেন, পাশেই পাঁচ তারকা রেডিসন বøু হোটেল। সেখানে যারা বিদেশিরা আছেন তারা হাঁটতে হাঁটতে এখানে আসেন। ময়লা-আবর্জনা দেখলে তারা কী মনে করবেন। আমরা একটি সুষ্ঠু পরিবেশ চাই এখানে। সিঙ্গাপুরের আদলে সিআরবিকে গড়া হবে। যত টাকাই লাগুক। আর আপনারা না পারলে আমাকে বলেন, আমি স্পন্সর দিয়ে কাজটি করিয়ে নেবো।

সিআরবির গোলচত্বর হয়ে রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপকের কার্যালয়ে যাওয়ার পথে ফজলে করিম দেখেন সড়কের পাশঘেঁষে ময়লা-আবর্জনা। তিনি এ সময় জিএমকে বলেন, এসব ময়লা-আবর্জনা সবসময় পরিষ্কার রাখবেন। সড়কজুড়ে ফুলের চারা রোপণ করবেন।
কার্যালয়ে যাওয়ার আগে ফজলে করিম প্রধান ফটকে ভবনের জরাজীর্ণ অবস্থা দেখে জিএম নাসির উদ্দিনকে বলেন, এই যে ভবনের এই পাশ থেকে ওইপাশ দেখা যাচ্ছে সেখানে কয়েকটা ইট গেঁথে দিলে কী হতো? বারান্দায় একদিনের মিস্ত্রি এনে কাজ করিয়ে নিলে কী হতো?
এ সময় প্রধান প্রকৌশলী সংস্কার করা হবে বলে আশ্বস্ত করলে ফজলে করিম বলেন, আমি যে ঘরে থাকি সেটিও ৩০০ থেকে ৪০০ বছর পুরনো। কই আমি তো বেশ পরিপাটি রাখছি। তাহলে এখানে পরিপাটি নয় কেন।

পরিত্যক্ত গাড়ি পড়ে থাকতে দেখে ফজলে করিম বলেন, আপনার প্রধান কার্যালয়ের সামনে পরিত্যক্ত গাড়ি কেন? এই গাড়িটি সরিয়ে ফেললে সুনাম বাড়তো না কমতো? শুনেন এগুলো দেখেন।এর আগে সিআরবির গোল চত্বরে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল স্থাপনের ঘোষণা দিয়ে চত্বরের চারপাশ ঘুরে দেখেন ফজলে করিম। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের প্রধান প্রকৌশলী সবুক্তগীন, প্রধান ভূ-সম্পত্তি কর্মকর্তা ইশরাত রেজা, রেলওয়ের নিরাপত্তা বাহিনীর (আরএনবি) প্রধান ইকবাল হোসেনসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

বিডিজার্নাল

Share.

About Author

Comments are closed.