রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ সায় দিলেন হ্যারি-মেগানের সিদ্ধান্তে

0

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

ইতিবাচক সাড়াই দিলেন ব্রিটেনের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ। গত বুধবার রাজকুমার হ্যারি ও তার স্ত্রী মেগান ‘সিনিয়র রয়্যাল’-এর ভূমিকা থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত ঘোষণার পর বৈঠকে রানি জানিয়েছেন, তাদের ইচ্ছার প্রতি তার ‘পুরোপুরি সমর্থন’ রয়েছে।

কিন্তু রানি মনে করেন, তারা ‘রয়্যাল’ থেকে গেলেই ‘বেশি ভাল হতো।’ রানির বক্তব্য, হ্যারি ও মেগান এবার কানাডা ও ব্রিটেনে মিলিয়ে মিশিয়ে সময় ভাগ করে থাকবেন। তবে পুরো বিষয়টি নিয়ে আরও কিছু প্রক্রিয়া বাকি রয়েছে বলে জানিয়েছেন ৯৩ বছর বয়সী রানি।রানির সঙ্গে কথা বলার কয়েক ঘণ্টা আগে হ্যারি এবং তার ভাই রাজকুমার উইলিয়াম আবার জানান, তাদের মধ্যে কোনও রকম দ্বন্দ্ব নেই। এর আগে ব্রিটেনের একটি পত্রিকায় দাবি করা হয়েছিল, মেগান আর হ্যারি নাকি বলেছেন- উইলিয়াম তাদের সঙ্গে ‘অপমানজনক আচরণ’ করেছেন।

এই প্রতিবেদনের ভাষা ব্যবহার নিয়ে কড়া আপত্তি জানিয়েছেন দুই ভাই।পত্রিকাটি লিখেছে, হ্যারির স্ত্রী মেগান নাকি বলেছেন, ব্রিটেনের রাজপরিবারে ২০ মাস থাকার পরে এবার সরে যেতে চান তিনি। সব কিছুর দায় তিনি চাপিয়েছেন হ্যারির বড় ভাই উইলিয়ামের ওপর। বড়দিনের মৌসুমেই নাকি মেগান বলেছিলেন, এভাবে আমি আর পারছি না!কিন্তু ওই পত্রিকাকে এক হাত নিয়েছেন হ্যারি ও উইলিয়াম। তারা বলেছেন, আমরা ওই খবরের সত্যতা স্বীকার না করা সত্ত্বেও ব্রিটেনের দৈনিকে সেটি প্রকাশিত হয়েছে। এর পরে দুই ভাই বুঝিয়েছেন, মানসিক স্বাস্থ্যের মতো বিষয়ে তারা অসম্ভব গুরুত্ব দেন। তাই তাদের কেউ অবমাননাকর ভাষা প্রয়োগ করবেন, এটা অকল্পনীয়। ক্ষতিকরও বটে।এদিকে প্রিন্স ফিলিপও ক্ষুব্ধ বলে জানা গেছে।

আলোচনায় থাকতে চান না বলেও জানিয়ে দেন তিনি। রানি, যুবরাজ চার্লস এবং উইলিয়ামের ওপরেই বিষয়টি ছেড়ে দেন প্রিন্স ফিলিপ। ২০১৭ সাল থেকে বাইরের কাজ থেকে অব্যাহতি নিয়েছেন প্রিন্স ফিলিপ। এরপর থেকে নরফোকের স্যানড্রিংহ্যাম এস্টেটের একটি কটেজে থাকেন রাণীর সঙ্গে।গত বুধবার হ্যারি-মেগানের ঘোষণার পর থেকেই অত্যন্ত ক্ষুব্ধ হন প্রিন্স ফিলিপ। ঘনিষ্ঠ সূত্রে তিনি নাকি বলেছিলেন, তারা কী করতে চাইছে? স্যানড্রিংহ্যাম এস্টেটের আলোচনায় হ্যারিকে বোঝানো হয়েছে, ‘সিনিয়র রয়্যাল’-এর পদ থেকে সরে গেলে কী কী বাধা তৈরি হবে। বৈঠকে উইলিয়ামের স্ত্রী ডাচেস অব ক্যামব্রিজ কেট ছিলেন না।

বিডিজার্নাল

Share.

About Author

Comments are closed.