মঠবাড়িয়ায় ভুঁয়া চক্ষু চিকিৎসকের কারাদণ্ড

0

বিডিজার্নাল পিরোজপুর প্রতিনিধি :

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় রুহুল আমিন খাঁ (৪২) নামে এক ভুয়া বিশেষজ্ঞ চক্ষু চিকিৎসকে এক বছর বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। আজ রবিবার মঠবাড়িয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এস এম ফরিদ উদ্দিন এ কারাদণ্ডাদেশ দেন।  দণ্ডিত রুহুল আমীন পার্শ্ববর্তী বরগুনার বামনা উপজেলার গোলাঘাটা গ্রামের মৃত ওয়াহেদ খাঁর ছেলে। তাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।   থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে,পল্লী চিকিৎসক রুহুল আমিন দীর্ঘদিন যাবৎ মঠবাড়িয়া পৌর শহরের নিউমার্কেট এলাকায় নিজেকে বিশেষজ্ঞ চক্ষু চিকিৎসক পরিচয় দিয়ে চেম্বার খুলে সাধারণ মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছিল। বিষয়টি স্থানীয় লোকজন জানতে পেরে আজ রবিবার সকালে তারা রুহুল আমিনকে তার চেম্বারে আটক করে রাখে। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এস.এম ফরিদ উদ্দিন ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে ভুয়া চক্ষু চিকিৎসক রুহুল আমিনকে মেডিক্যাল ও ডেন্টাল কাউন্সিল আইন ২০১০-এর (১) (৩) ধারা অনুযায়ী এক বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন। পুলিশ দণ্ডিত ভুয়া চিকিৎসককে কারাগারে পাঠিয়েছে। এ ব্যাপারে মঠবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিক্যাল অফিসার ডা. বশির আহমেদ জানান, এমবিবিএস পাসের পর চোখের ওপর বিশেষজ্ঞ ডিগ্রি বা ট্রেনিং না থাকলে চোখের চিকিৎসা দেওয়া যায় না। রুহুল আমিন পল্লী চিকিৎসকের সার্টিফিকেট নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে চোখের চিকিৎসার নামে সাধারণ মানুষের সাথে প্রতারণা করে আসছিল।

বিডিজার্নাল৩৬৫ডটকম// আরডি/ এসএমএইচ // ২৯ মে ২০১৬

Share.

About Author

Comments are closed.