বৃষ্টির সাজ-পোশাক

0

বিডিজার্নাল প্রতিনিধি :

অন্যান্য সময়ের সাজের সঙ্গে বর্ষাদিনের সাজের একটি বিশেষ পার্থক্য আছে। হুটহাট বৃষ্টির ছাঁট লেগে মুহূর্তেই ভেস্তে যেতে পারে আপনার সাজ-পোশাকের সব আয়োজন। আবার রাস্তাঘাটে কাঁদা আর চারপাশে স্যাঁতস্যাঁতে একটা ভাব থাকার কারণে এমন সাজ-পোশাক নির্বাচন করা দরকার যাতে স্বস্তি ও আরাম দুই-ই মেলে। এরকম সময়ে বৃষ্টি, বর্ষার ফুল, লতাপাতা, মেঘলা আকাশ এসব বিষয় উঠে আসে পোশাকের মোটিফ হিসেবে। এছাড়া ব্লক, স্ক্রিন প্রিন্ট, হালকা অ্যামব্রয়ডারি ও চুমকির কাজ থাকে পোশাকগুলোতে। রঙের ক্ষেত্রে সবুজ, নীল, ছাই, আকাশি- ইত্যাদি প্রাধান্য দিয়ে থাকে হাউসগুলো।
বৃষ্টির সময়টাতে আবহাওয়া খানিকটা গুমোট থাকে বলে সুতি কিংবা জর্জেট কাপড়কেই বেশি প্রাধান্য দেন অনেকে। তবে কোনো অনুষ্ঠানে যেতে চাইলে অ্যান্ডি সিল্কের পোশাকও পরা যেতে পারে। রঙটাও একটু গাঢ় পরাই সুবিধাজনক। সহজে ধোয়া যায় বা ভিজলে তাড়াতাড়ি শুকোয় তেমন পোশাকই নির্বাচন করুন। 
সালোয়ার-কামিজের ক্ষেত্রে সুতির বদলে সিনথেটিক ফেব্রিকের কাপড় বেছে নিতে পারেন। শাড়ির ক্ষেত্রেও সুতি এড়িয়ে শিফন বা জর্জেট বেশি উপযোগী। কাপড়ের রঙ নির্বাচনে উজ্জ্বল ও গাঢ় রংগুলো বাছাই করুন। বর্ষার সঙ্গে নীল রঙের একটা সম্পর্ক রয়েছে। চেষ্টা করুন নীলের ছোঁয়া বা কম্বিনেশনে পোশাক পরতে। খুব বেশি পাতলা কাপড় এ সময় পরবেন না।
বর্ষার এই সময়ে মুখের সাজ হালকা হলেই ভালো লাগবে। কপালে ছোট টিপ এবং চোখে নীল, সবুজ বা ছাই রঙের কাজলের টান দিতে পারেন। চোখের সাজের ক্ষেত্রে ওয়াটারপ্রুফ কাজল, মাশকারা, লাইনার ব্যবহার করুন। আইশ্যাডো দিলে হালকা কোনো রঙ বেছে নিন। হালকা ফেস পাউডার লাগাতে পারেন। লিপস্টিকের বেলায় গ্লসি হলেই ভালো। হালকা গোলাপি, বাঙ্গি, হালকা বাদামি ধরনের রঙ বাছাই করতে পারেন লিপস্টিকের ক্ষেত্রে।
বর্ষার সময়ে চুলের জন্য চাই বর্ষা উপযোগী বাঁধন। যাদের চুল লম্বা বা মাঝারি, তারা হাত খোঁপা করতে পারেন। আপনার চুলগুলোকে সুন্দর করে গুছিয়ে নিন। এবার সব চুল একসঙ্গে মাথার নিচের দিকে এনে সেখানে ধরে হাতের সাহায্যে খোঁপা করে নিন। খোঁপা আটকানোর জন্য ব্যবহার করতে পারেন চুলের কাঁটা বা ক্লিপ।পনিটেল বাঁধতে চাইলে সব চুল ভালোভাবে গুছিয়ে পেছনে নিয়ে রাবার ব্যান্ড বা ক্লিপ দিয়ে আটকে নিন। এভাবে চুল বাঁধার উপায়টি সব থেকে সহজ আর যে কোনো পোশাকের সঙ্গে দারুণভাবে মানিয়ে যায়। চাইলে বর্ষার কোনো ফুল গুঁজে নিতে পারেন চুলে।
বর্ষায় কাপড় বা চটের ব্যাগ ব্যবহার করা উচিত নয়। এড়িয়ে চলুন চামড়ার ব্যাগও। ওয়াটারপ্রুফ, রেক্সিন, প্লাস্টিক বা রাবারের তৈরি ব্যাগ ব্যবহার করতে পারেন। বাজারে এখন বর্ষা উপযোগী ফ্যাশনেবল ব্যাগ কিনতে পাওয়া যায়। পায়ে পরতে পারেন রাবার, রেক্সিন ও স্পঞ্জের তৈরি ফ্যাশনেবল জুতা বা স্লিপার। বেশি কাদাযুক্ত রাস্তায় পরবেন সেমি-হিল। এতে কাদায় পা মাখামাখি থেকে রক্ষা পাবেন।

বিডিজার্নাল৩৬৫ডটকম// আরডি/ এসএমএইচ // ১৯ জুলাই ২০১৬

Share.

About Author

Comments are closed.