‘বাংলাদেশের সঙ্গে ভারত জঙ্গিবাদ বিষয়ে গোয়েন্দা তথ্য বিনিময় করবে’

0

বিডিজার্নাল প্রতিনিধি :

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, যৌথ সন্ত্রাস বিরোধী অভিযানে সহযোগিতা জোরদারের অংশ হিসেবে জঙ্গিবাদ নিয়ে গোয়েন্দা তথ্য বিনিময়ের বিষয়ে সমঝোতার মধ্যদিয়ে ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংহের সঙ্গে তার সাম্প্রতিক বৈঠক শেষ হয়েছে। প্রতিনিধি পর্যায়ে বৈঠক শেষে ভারত থেকে দেশে ফেরার একদিন পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আজ তার কার্যালয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে বলেন, ‘আমরা গোয়েন্দা তথ্য বিনিময়সহ তিনটি সুনির্দিষ্ট ক্ষেত্রে ভারতের সহযোগিতা গ্রহণ করবো।’ তিনি আরো বলেন, অন্য দুটি ক্ষেত্র হচ্ছে অভিজ্ঞতা বিনিময় ও প্রশিক্ষণ সহযোগিতা গ্রহণ। মন্ত্রী বলেন, ‘ভারত আমাদের জঙ্গি বিরোধী অভিযানে সার্বিক সহযোগিতার প্রস্তাব করেছে। আমরা এই ‘জঘন্য কার্যক্রম’ (জঙ্গিবাদ) মোকাবেলায় একসঙ্গে কাজ করতে সম্মত হয়েছি।’ নয়াদিল্লীতে অনুষ্ঠিত ওই আলোচনায় বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দিয়ে খান ভারতীয় রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেন। তিনি বলেন, ওই আলোচনায় নিরাপত্তা ও সীমান্ত ব্যবস্থাপনার আন্তঃসীমান্ত বিষয়গুলো ব্যাপক গুরুত্ব পায়। দুর্গম ও দূরবর্তী অঞ্চলে টহলদানকালে বিজিবি’কে সীমান্তে তাদের সড়ক ব্যবহার ও চিকিৎসা সুবিধা দেয়ার ক্ষেত্রে বাংলাদেশের প্রস্তাবে দিল্লী সম্মত হয়েছে। তিনি সীমান্তে হতাহত ‘শূন্যের কোঠায়’ নামিয়ে আনতে ভারতীয় কর্তৃপক্ষের প্রতি আহবান জানিয়েছেন। ১৪ সদস্যের বাংলাদেশে প্রতিনিধিদল স্থলসীমান্ত চুক্তির বাস্তবায়ন, নারী ও শিশু পাচার, মাদক চোরাচালান এবং জাল মুদ্রা ইত্যাদি বিষয়েও আলোচনা করেছে। আসাদুজ্জামান খান বলেন, বাংলাদেশী পর্যটকদের জন্য ভিসা প্রসেসিং পদ্ধতি আরো সহজ করার আশ্বাসও দিয়েছে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ। নয়াদিল্লীতে বাংলাদেশের হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী, সিনিয়র স্বরাষ্ট্র সচিব ড. মোজাম্মেল হক খান, পুলিশের আইজি এ কে এম শহীদুল হক, বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আজিজ আহমেদ, কোস্টগার্ড প্রধান রিয়ার এডমিরাল আওরঙ্গজেব চৌধুরী ও প্রতিনিধিদলের সংশ্লিষ্ট অন্যান্য কর্মকর্তারা ওইসব বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

বিডিজার্নাল৩৬৫ডটকম// আরডি/ এসএমএইচ // ৩১ জুলাই ২০১৬

Share.

About Author

Comments are closed.