নেইমারে মুগ্ধ ব্রাজিল কোচ

0

বিডিজার্নাল ক্রীড়া ডেস্ক :

রিও অলিম্পিকে ব্রাজিল ভক্তদের চোখ এখন দুই নেইমারে। প্রথম জন বার্সেলোনার। দ্বিতীয় জন তারই সাবেক ক্লাব সান্তোসের। গাবিগোল। দু’জনই বিতর্ক কাটিয়ে এখন দেশকে অলিম্পিকে সোনা জেতানোর মিশনে নেমে পড়েছেন মাঠে।
কোচ রোজারিও মিকেলেও এ তথ্য ফাঁস করে দিলেন। শনিবার জাপানের বিরুদ্ধে প্রীতি ম্যাচে অধিনায়কত্ব করেন নেইমারই। এ ঘোষণা আগেই দিয়ে রেখেছিলেন তিনি। ওই সময়ই তিনি বলেছিলেন, ‘নেইমারের সঙ্গে আমার একবার কথা বলে মনে হয়েছে যে এই দলে নেতৃত্বের দায়িত্ব নেওয়ার দিক থেকে সেই সেরা। নেইমার আমার প্রত্যাশা ছাপিয়ে গিয়েছে। এ রকম বড় মনের বড় মানের খেলোয়াড়, যে সব সময় দলের সবাইকে সাহায্য করতে রাজি, তাকে তো সবাই পছন্দ করবেই। তাই ওই আমার ক্যাপ্টেন।’
ঘোষণা আগেই হয়ে গিয়েছিল। তিনিই রিও অলিম্পিকে ব্রাজিলের ক্যাপ্টেন্সির আর্মব্যান্ড হাতে মাঠে নামবেন। তবু বিতর্ক তুলেছিলেন সাবেক ব্রাজিল ফুটবলাররা তাকে অধিনায়ক করা নিয়ে। প্রশ্ন উঠেছিল, গত বছর কোপা আমেরিকায় তিনি অধিনায়ক হয়ে কোন সাফল্যটা পেয়েছেন? বিতর্কের সেই আগুনে নিজেই পানি ঢেলে দেন নেইমার। কোচকে এটা বুঝিয়ে যে, দলের জন্য তিনিই সেরা অধিনায়ক। তার নেতৃত্বেই অলিম্পিকে জ্বলে উঠবে সেলেকাও হলুদ জার্সি।
তার বড় প্রমাণ প্রস্তুতি ম্যাচে জাপানকে ২-০ গোলে হারিয়ে শুভ সূচনা করাটা। নেইমার নিজে গোল করতে না পারলেও সামনে থেকে নেতৃত্ব দেন। গোল করেছিলেন গাব্রিয়েল এবং মার্কুইনহোস। 
অলিম্পিকে সোনা জিতে বিশ্বকাপের ব্যর্থতা কিছুটা হলেও ভুলতে তৈরি নেইমার ব্রিগেডও। যে যুদ্ধে ব্রাজিল অলিম্পিক দলের সবচেয়ে ব়ড় অস্ত্র আগুনে ফরোয়ার্ড লাইন। ব্রাজিল মিডিয়া বলছে, নেইমারসহ বাকি দুই ফরোয়ার্ড গাব্রিয়েল জেসাস ও গাবিগোল (যাকে ব্রাজিলের নতুন নেইমার বলা হচ্ছে) তিন ফরোয়ার্ডের মূল্য নাকি ১৫২ মিলিয়ন ইউরো। গাব্রিয়েল তো গোল করেই সেটা প্রমাণ দিলেন।
গাব্রিয়েল আসন্ন মওসুমে ম্যানচেস্টার সিটিতে যাচ্ছেন ৩২ মিলিয়ন ইউরোয় আর গাবিগোলের কাছে ২০ মিলিয়ন ইউরোর প্রস্তাব রয়েছে জুভেন্তাসে যাওয়ার। ব্রাজিলের ফরোয়ার্ড লাইনের সামনে চ্যালেঞ্জটা অবশ্য সোজা নয়। সেটা মাথায় রেখেই ‘নতুন নেইমার’ পাল্টা হুঙ্কার দিতেও ছাড়ছেন না। 
তিনি বলছেন, ‘আমরা সব শুনছি। সবাইকে সম্মান দিয়েই বলছি আমরা অলিম্পিকে এটা দেখিয়ে দিতে চাই যে বিশ্বের সেরা ফুটবল আর সেরা ফুটবলারদের পাওয়া যায় শুধু ব্রাজিলেই।’
অবশ্য রিও অলিম্পিকের চ্যালেঞ্জ যত এগিয়ে আসছে ব্রাজিল ভক্তদের ভরসাও বোধহয় সেলেসাও অধিনায়কের ওপর জোরালো হচ্ছে। শুক্রবারই যেমন এক ভক্ত ব্রাজিলের টিম হোটেলে লুকিয়ে ছিলেন নেইমারের সঙ্গে দেখা করতে। পুলিশ খবর পেয়ে তাকে গ্রেফতার করে পরে সতর্ক করে ছেড়ে দেয়।
গত বছর কোপা আমেরিকায় কোয়ার্টার ফাইনালে হারের পিছনে অনেকে নেইমারকে দায়ী করেছিলেন। শেষ গ্রুপ ম্যাচে কলম্বিয়ার বিরুদ্ধে সেবার মাথা গরম করে লালকার্ড না দেখলে প্যারাগুয়ের বিরুদ্ধে ম্যাচে তিনি ব্রাজিলকে বাঁচানোর একটা সুযোগ পেতেন। 
অধিনায়ক এ রকম হঠকারী সিদ্ধান্ত কেন নেবেন সেই প্রশ্নও উঠেছিল। অনেক সাবেক ব্রাজিল ফুটবলারই তাই নেইমারকে অলিম্পিকে অধিনায়ক করার বিরোধী ছিলেন। এ কারণে দুঙ্গার পর দায়িত্বে আসা ব্রাজিল কোচ তিতে নেইমারকে অধিনায়ক করা নিয়ে আগাম কোনও মন্তব্যও করতে চাননি। ব্রাজিলের অলিম্পিকের জন্য দায়িত্বে থাকা কোচ মিকালেও কোনও সিদ্ধান্তে আসতে পারছিলেন না।
শেষ পর্যন্ত নেইমার তাকে ভরসা জোগানোর পর এবার তার নেতৃত্বে হলুদ জার্সির ঝড় রিওতে সোনার দৌড়ে উঠে আসে কি না সেটাই দেখার। 

বিডিজার্নাল৩৬৫ডটকম// আরডি/ এসএমএইচ // ৩১ জুলাই ২০১৬

Share.

About Author

Comments are closed.